असम ने मेघ बॉर्डर पर हिंसा के न्यायालय सीबीआई को सौंपी, हिमंता विश्व शर्मा की कैबिनेट का निर्णय

ছবি সূত্র: পিটিআই
অসম-মেঘালয় বোর্ডার

আসাম মেঘালয় সীমান্ত সহিংসতা : মেঘালয়ের মন্ত্রিসভা এবং কেন্দ্রীয় বিশ্বগৃহ মন্ত্রী অমিত শাহের মধ্যবর্তী বৈঠকে প্রথমে অসমকে প্রধান হিমন্ত নে বুধওয়ারকে দিল্লিতে বলেন যে তাদের মন্ত্রিসভা উভয় রাজ্যের সীমান্তের উপর নির্যাতনের পরাঘাতের নিরাপত্তা কেন্দ্রীয় শর্মা ব্যুরো (সিবিআই) কে সম্পনে সিদ্ধান্ত হয়েছে। অসম কে মন্ত্রী মধ্যবর্তী অসমী নায়ক লচিত বোরফুকনের সম্মানে শিক্ষার জন্য দিল্লী আসবেন, এখানে মন্ত্রি বোর্ডের এই আয়োজন অনুষ্ঠিত হয়।

বন কর্মীদের জন্য এসওপি চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিন

मंत्रि ने मंगलवार को मेघालय के पांच आदिवासी ग्रामीणों को मार गिरने के बल राज्य के पुलिस को भी नागरिकों मंडलों बलने बलने के ऐसेंति से मंडल के समय संयम बरतने का निर्देश दिया। দিল্লীতে অনুষ্ঠিত বিশেষ ক্যাবিনেট বৈঠকের সময় মন্ত্রিপরিষদ ফলাফলের নাগরিকদের থেকে সংশ্লিষ্টতা থেকে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করা হয় এবং পুলিশ কর্মানিদের জন্য একটি মানক নিরাপত্তা প্রক্রিয়া (এসওপি) চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

আমরা পুলিশ से संयम बरतने को कहा है-शर्मा

শর্মা টুইট করেছেন, ‘হামনে পুলিশ নাগরিকদের থেকে সদস্যদের অস্ত্রের ব্যবহারে সংযম বরতনে বলা হয়েছে। এই ধরনের অবস্থা থেকে রাষ্ট্রের জন্য পুলিশ এবং বন কর্মীদের জন্য এসওপি প্রস্তুত করা হবে। সমস্ত পুলিশ থানা প্রভৃতি এই ধরনের প্রতিহত করবে।”

মেঘालय के सीएम ने सीबीआई जांच की मांग की थी

আগে, মঙ্গলবার রাতে মেঘালয় ক্যাবিনেটের বৈঠক হয়েছিল, 24 নভেম্বর কেন্দ্রের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অমিত শাহ থেকে মিলনের জন্য প্রধান কোণরাডের সংমায়ের নেতৃত্বে মন্ত্রিত্বের প্রতিনিধিদের দিল্লির উত্তরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। মেঘালয় প্রতিনিধি বোর্ড রাজ্যের আগে সীমান্তের উপর হামলা হয় इस हिंसा में राज्य के पांच नागरिकों और असम सीमा रक्षक सीमा छह लोगों की मौ हो गई थी।

অসম পুলিশ এবং বন রক্ষক অকারণে গুলিবারি-সংমা

মেঘালয়ের প্রধান কোনরাড সংমা মঙ্গলওয়ারকে টুইটারে অভিযোগ করেছেন যে অসম পুলিশ ও বন রক্ষকদের “মেঘালয়ে প্রবেশ করানো হয়েছে এবং রাজ্যের নাগরিকদের অকারণে গুলিবারি করা হয়েছে। এই মন্তব্যের সাথে তারা পিএম নরেন্দ্র মোদি, বিশ্ব কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অমিত শাহ এবং অসমকে প্রধান হিমন্ত শর্মাকে ট্যাগ করেছেন। অসম ক্যাবিনেটের বৈঠকে, মন্ত্রিদের পশ্চিম কার্বি আঙ্গলং জিলেতে “দুর্ভাগ্যপূর্ণ পুলিশ-নাগরিক সংগ্রাম”-এ ছহলো কি মৌত এবং অন্যান্য অনেকের ঘায়েল হতে পারে গহরি উদ্বেগ প্রকাশ করে শোক জাতায়া।

বিচারিক বিচার 60 দিন के अंदर पूरी करेगा-शर्मा

অসমের প্রধান নেত্রী বৈঠকের পর সিলসিলেওয়ার টুইট করেছেন যে, “হামারে মন্ত্রিসভা সংশ্লিষ্ট পুলিশ তদন্ত সিবিকে সম্পেনেরও সিদ্ধান্ত হয়েছে৷ তিনি বলেন, ‘রাজ্য সরকার গুवाहा उच्च न्यायालय सेवानिवृत्त न्यायाधीशमूर्ति रुमी फूकन को घटना के लिए जिम्मेदार रहींियों की परिस्थितिक जांच का अनुरोध करने का भी फैसला किया है। शर्मा ने कहा कि न्यायिक जांच 60 দিন के अंदर पूरी कर ली गई। প্রথম মেঘালয় বলতে বলা হয় নেতার প্রতিপক্ষ মুকুল সংমাকে বুধওয়ার হিসাবে কথিত থেকে নিহত্থে গ্রামীণ হত্যার “নরসংহারের ঘটনা” এবং দোষীদের বিরুদ্ধে আক্রমণের দাবি। সন্ত্রাসে ছহ লোক মারে গিয়েছিলেন।

প্রকাশ-ভাষা

সর্বশেষ ভারতের খবর



Supply hyperlink

Leave a Comment